স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস (৮ম-অতিসংক্ষিপ্ত)

স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস (৮ম-অতিসংক্ষিপ্ত) প্রশ্নোত্তর ও সাজেশন সম্পর্কে আজকে বিস্তারিত সকল কিছু জানতে পারবেন। সুতরাং সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়ুন। অনার্স ১ম বর্ষের যেকোন বিভাগের সাজেশন পেতে জাগোরিকের সাথে থাকুন।

অনার্স প্রথম পর্ব
বিভাগ: স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস
বিষয় : ১৯৭০-এর নির্বাচন, ১৯৭১ সালের মার্চের অসহযোগ আন্দোলন ও বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতা ঘোষণা
বিষয় কোড: ২১১৫০১

ক-বিভাগঃ অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নের উত্তর

১. অবিভক্ত পাকিস্তানের প্রথম ও শেষ সাধারণ নির্বাচন বলা হয় কোন নির্বাচনকে ?
উত্তর : অবিভক্ত পাকিস্তানের প্রথম ও শেষ সাধারণ নির্বাচন বলা হয় ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনকে।

২. ‘পাকিস্তানের মৃত্যুর বার্তাবাহক’ বলে মনে করা হয় কোন নির্বাচনকে?
উত্তর ‘পাকিস্তানের মৃত্যুর বার্তাবাহক’ বলে মনে করা হয় ১৯৭০ সালের নির্বাচনকে।

৩. ১৯৭০ সালের কত তারিখে পাকিস্তানে জাতীয় পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়?
উত্তর : ১৯৭০ সালের ৭ ডিসেম্বর পাকিস্তানে জাতীয় পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ।

৪. ১৯৭০ সালের তারিখে পাকিস্তানে প্রাদেশিক পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়?
উত্তর: ১৯৭০ সালের ১৭ ডিসেম্বর পাকিস্তানে প্রাদেশিক পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ।

৫. ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় কোন আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে?
উত্তর : ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় এর ৬ দফা ১৯৬৬ এর ৬ দফা আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে।

৬. ১৯৬৮ সালের কোন ঘটনা ১৯৭০ সালের নির্বাচনের পথকে প্রশস্ত করে?
উত্তর : ১৯৬৮ সালের ‘আগরতলা মামলা’ ১৯৭০ সালের নির্বাচনের পথকে প্রশস্ত করে ।

৭. ১৯৭০ সালের নির্বাচনে পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদের আসন কয়টি ছিল?
উত্তর : ১৯৭০ সালের নির্বাচনে পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদের আসন ছিল ৩১৩টি।

৮. ১৯৭০ সালে পূর্ব পাকিস্তানের প্রাদেশিক পরিষদের নির্বাচনে আসন কয়টি ছিল?
উত্তর : ১৯৭০ সালে পূর্ব পাকিস্তানের প্রাদেশিক পরিষদের নির্বাচনে আসন ছিল ৩০০টি।

৯. মোট কতটি রাজনৈতিক দল ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে?
উত্তর : মোট ২৪টি রাজনৈতিক দল ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে।

১০. কে ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব দেন?
উত্তর : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব দেন।

স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস (৮ম-অতিসংক্ষিপ্ত) *

১১. ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রধান নির্বাচনি বিষয় কী ছিল?
উত্তর : ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রধান নির্বাচনি বিষয় ছিল বাঙালির মুক্তির সনদ ৬ দফা ও ছাত্রসমাজের ১১ দফা।

১২. ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নির্বাচনি প্রতীক কোনটি ছিল?
উত্তর ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নির্বাচনি প্রতীক ছিল নৌকা।

১৩. ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের জনপ্রিয় স্লোগানটি লেখ ।
উত্তর : ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের জনপ্রিয় স্লোগানটি হলো ‘জয় বাংলা’ ।

১৪. ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে কোন দল?
উত্তর ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে আওয়ামী লীগ।

১৫. ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে দ্বিতীয় সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে কোন দল?
উত্তর ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে দ্বিতীয় সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি)।

১৬.আওয়ামী লীগ ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে কয়টি আসন লাভ করেছিল?
উত্তর : আওয়ামী লীগ ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে ১৬৭টি আসন লাভ করেছিল

১৭.১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে পাকিস্তান পিপলস পার্টি কতটি আসন লাভ করেছিল?
উত্তর ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে পাকিস্তান পিপলস পার্টি ৮৮টি আসন লাভ করেছিল।

১৮. স্বতন্ত্র (নির্দলীয়) প্রার্থী ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে কতটি আসন লাভ করে?
উত্তর : স্বতন্ত্র (নির্দলীয়) প্রার্থী ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে ১৪টি আসন লাভ করে

১৯, ১৯৭০ সালের পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ কয়টি আসন লাভ করে?
উত্তর : ১৯৭০ সালের পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ২৯৮টি আসন লাভ করে।

২০. নেজামে ইসলাম ১৯৭০ সালের পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদ নির্বাচনে কয়টি আসন লাভ করে?
উত্তর : নেজামে ইসলাম ১৯৭০ সালের পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদ নির্বাচনে ১টি আসন লাভ করে।

স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস (৮ম-অতিসংক্ষিপ্ত) *

২১. ন্যাপ (ওয়ালি) ১৯৭০ সালের পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদ নির্বাচনে কয়টি আসন লাভ করে? উত্তর : ন্যাপ (ওয়ালি) ১৯৭০ সালের পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদ নির্বাচনে ১টি আসন লাভ করে।

২২. কোন নির্বাচনের চূড়ান্ত ফসল ছিল ‘স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়’?
উত্তর : ১৯৭০ সালের নির্বাচনের চূড়ান্ত ফসল ছিল। ‘স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়’।

২৩. অসহযোগ অর্থ কী?
উত্তর অসহযোগ অর্থ সহযোগিতা না করা।

২৪. ১৯৭০ সালের নির্বাচনের পর শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় পরিষদের অধিবেশন আহ্বান করার পরামর্শ দেন কখন?
উত্তর : ১৯৭০ সালের নির্বাচনের পর শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় পরিষদের অধিবেশন আহ্বান করার পরামর্শ দেন ১৯৭১ সালের ১০ ফেব্রুয়ারির মধ্যে।

২৫. ১৯৭১ সালের কত তারিখে জাতীয় পরিষদের অধিবেশন স্থগিত ঘোষণা করা হয়?
উত্তর : ১৯৭১ সালের ১ মার্চ জাতীয় পরিষদের অধিবেশন স্থগিত ঘোষণা করা হয়।



২৬. ১৯৭১ সালের ১ মার্চ জাতীয় পরিষদের অধিবেশন স্থগিত ঘোষণা করেন কে?
উত্তর : ১৯৭১ সালের ১ মার্চ জাতীয় পরিষদের অধিবেশন স্থগিত ঘোষণা করেন প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া খান ।

২৭. জাতীয় পরিষদের অধিবেশন স্থগিত হলে কোন স্লোগানে চারদিক মুখরিত হয়?
উত্তর : জাতীয় পরিষদের অধিবেশন স্থগিত হলে ‘বীর বাঙালি অস্ত্র ধর, বাংলাদেশ স্বাধীন কর’ স্লোগানে চারদিক মুখরিত হয় ।

২৮. স্বাধীন বাংলা সংগ্রাম পরিষদ গঠিত হয় কখন?
উত্তর : স্বাধীন বাংলা সংগ্রাম পরিষদ গঠিত হয় ১৯৭১ সালের ১ মার্চ।

২৯. কে স্বাধীন বাংলা সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি ছিলেন?
উত্তর : নূরে আলম সিদ্দিকী স্বাধীন বাংলা সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি ছিলেন।

৩০. কতজন সদস্য নিয়ে স্বাধীন বাংলা সংগ্রাম পরিষদ গঠিত হয়?
উত্তর : ৪ জন সদস্য নিয়ে স্বাধীন বাংলা সংগ্রাম পরিষদ গঠিত হয় ।

স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস (৮ম-অতিসংক্ষিপ্ত) *

৩১. স্বাধীন বাংলা সংগ্রাম পরিষদের সভায় স্বাধীনতার ইশতাহার পাঠ করেন কে?
উত্তর : স্বাধীন বাংলা সংগ্রাম পরিষদের সভায় স্বাধীনতার ইশতাহার পাঠ করেন শাহজাহান সিরাজ।

৩২. স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম মানচিত্র অঙ্কন করেন কে?
উত্তর : স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম মানচিত্র অঙ্কন করেন কুমিল্লার শিবনারায়ণ দাস।

৩৩. কে স্বাধীন বাংলা নিউক্লিয়াসের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন?
উত্তর : সিরাজুল আলম খান স্বাধীন বাংলা নিউক্লিয়াসের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন ।

৩৪. কখন, কোথায় ‘স্বাধীন বাংলাদেশ’ প্রতিষ্ঠার শপথ নেওয়া হয়?
উত্তর : ১৯৭১ সালের ২ মার্চ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কলাভবন প্রাঙ্গণে স্বাধীন বাংলাদেশ’ প্রতিষ্ঠার শপথ নেওয়া হয় ।

৩৫. বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার ডিজাইনার কে ছিলেন?
উত্তর : বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার ডিজাইনার ছিলেন শিল্পী কামরুল হাসান ।

৩৬. বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা প্রথম কবে উত্তোলিত হয়?
উত্তর : বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ১৯৭১ সালের মার্চ প্রথম উত্তোলন করা হয় ।

৩৭. বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা প্রথম উত্তোলন করেন কে?
উত্তর : বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা প্রথম উত্তোলন করেন তৎকালীন ডাকসুর সহ-সভাপতি আ. স. ম আব্দুর রব ।

৩৮. বাংলাদেশের পতাকা প্রথম কোথায় উত্তোলন করা হয়।
উত্তর : বাংলাদেশের পতাকা প্রথম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ সমাবেশে উত্তোলন করা হয় ।

৩৯. ১৯৭১ সালে অসহযোগ আন্দোলনের ডাক দেন কে?
উত্তর : ১৯৭১ সালে অসহযোগ আন্দোলনের ডাক দেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ।

৪০. বঙ্গবন্ধু অসহযোগ আন্দোলনের ডাক দেন ১৯৭ সালের কত তারিখে?
উত্তর : বঙ্গবন্ধু অসহযোগ আন্দোলনের ডাক দেন ১৯৭১ সালের ৩ মার্চ ।

স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস (৮ম-অতিসংক্ষিপ্ত) *

৪১. কখন, কোথায়, কে শেখ মুজিবকে ‘জাতির জনক’ হিসেবে ঘোষণা করেন?
উত্তর : ১৯৭১ সালের ৩ মার্চ পল্টন ময়দানে আ. স. ম, আব্দুর রব শেখ মুজিবকে ‘জাতির জনক’ হিসেবে ঘোষণা দেন।

৪২. বঙ্গবন্ধু ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ দিয়েছিলেন কোথায়?
উত্তর : বঙ্গবন্ধু ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ দিয়েছিলেন ঢাকার রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যান)।

৪৩.বঙ্গবন্ধু ৭ মার্চের ভাষণে কী নির্দেশনা প্রদান করেন?
উত্তর : বঙ্গবন্ধু ৭ মার্চের ভাষণে স্বাধীনতার নির্দেশনা প্রদান করেন।

৪৪. বাঙালি জাতিকে ঘরে ঘরে দুর্গ গড়ে তোলার আহ্বান জানান কে?
উত্তর : বাঙালি জাতিকে ঘরে ঘরে দুর্গ গড়ে তোলার আহ্বান জানান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

৪৫. “আমি প্রধানমন্ত্রিত্ব চাই না। আমরা এদেশের মানুষের অধিকার চাই।”— উক্তিটি কে করেছেন? উত্তর : “আমি প্রধানমন্ত্রিত্ব চাই না। আমরা এদেশের মানুষের অধিকার চাই।”—উক্তিটি করেছেন শেখ মুজিবুর রহমান।

স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস (৮ম-অতিসংক্ষিপ্ত) *

৪৬. “শহিদের রক্তের উপর পাড়া দিয়ে আরটিসিতে মুজিবুর রহমান যোগদান করতে পারে না।”— উক্তিটি কে করেছেন?
উত্তর : “শহিদের রক্তের উপর পাড়া দিয়ে আরটিসিতে মুজিবুর রহমান যোগদান করতে পারে না।”—উক্তিটি করেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

৪৭. “রক্ত যখন দিয়েছি, রক্ত আরো দেবো । এই দেশের মানুষকে মুক্ত করে ছাড়ব ইনশাল্লাহ।”— উক্তিটি কে করেছেন?
উত্তর : “রক্ত যখন দিয়েছি, রক্ত আরো দেবো। এই দেশের মানুষকে মুক্ত করে ছাড়ব ইনশাল্লাহ।”— উক্তিটি করেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ।

৪৮. “এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম।”- উক্তিটি কে করেছেন?
উত্তর : “এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম।”—উক্তিটি করেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ।

৪৯. ৭ মার্চের ভাষণের সবচেয়ে জনপ্রিয় লাইন কোনটি?
উত্তর : ৭ মার্চের ভাষণের সবচেয়ে জনপ্রিয় লাইন হচ্ছে “এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম।”

৫০. বঙ্গবন্ধুর জয় বাংলা’ স্লোগানটি জনপ্রিয়তা লাভ করে কখন?
উত্তর : বঙ্গবন্ধুর ‘জয় বাংলা’ স্লোগানটি জনপ্রিয়তা লাভ করে ৭ মার্চের ভাষণের পর।

উক্ত বিষয় সম্পর্কে কিছু জানার থাকলে কমেন্ট করতে পারেন।
আমাদের সাথে ইউটিউব চ্যানেলে যুক্ত হতে এখানে ক্লিক করুন এবং আমাদের সাথে ফেইজবুক পেইজে যুক্ত হতে এখানে ক্লিক করুন
গুরুত্বপূর্ণ আপডেট ও তথ্য পেতে আমাদের ওয়েবসাইটে ভিজিট করুন।

Check Also

স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস (১০ম-সংক্ষিপ্ত)

স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস (১০ম-সংক্ষিপ্ত)

স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস (১০ম-সংক্ষিপ্ত) প্রশ্নোত্তর ও সাজেশন সম্পর্কে আজকে বিস্তারিত সকল কিছু জানতে পারবেন। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *